রাজশাহী কলেজ গ্রন্থাগার

রাজশাহী কলেজ উইকি থেকে
Nahid (আলোচনা | অবদান) কর্তৃক ০৯:২০, ৩১ আগস্ট ২০১৬ পর্যন্ত সংস্করণে (বিষয়শ্রেণী:প্রশাসন যোগ হটক্যাটের মাধ্যমে)

(পরিবর্তন) ←পুর্বের সংস্করণ | সর্বশেষ সংস্করণ (পরিবর্তন) | পরবর্তী সংস্করণ→ (পরিবর্তন)
রাজশাহী কলেজ গ্রন্থাগার

রাজশাহী কলেজ গ্রন্থাগার রাজশাহী কলেজের কেন্দ্রীয় গন্থাগার।

ইতিহাস

হযরত শাহ মখদুম (রহঃ) এর পরশধন্য ও অতীতের প্রবহমান ও শক্তিমান পদ্মার স্মৃতি বিজড়িত শান্তিময় নগরী রাজশাহী শহরের প্রাণকেন্দ্রে সার্ধ শতাব্দীর দ্বার প্রান্তে উপনিত এই ঐতিহ্যবাহী রাজশাহী কলেজ অবস্থিত৷ ১৮৭৩ সালে কলেজ প্রতিষ্ঠার সাথে সাথে কলেজ লাইব্রেরি তার কার্যক্রম শুরু করেছিল কিনা সে বিষয়ে কোন দালিলিক প্রমাণ না পাওয়া গেলেও জানা যায় যে, কলেজ শুরুর প্রথম বছরে ক্লাশসমূহ তত্কালীন কলেজিয়েট স্কুলে অনুষ্ঠিত হত এবং পরবর্তিতে নিজস্ব ভবন তৈরী হলে বেশ কিছু সংখ্যক পুস্তক, দলিল-দস্তাবেজ এবং সরকারী রিপোর্ট স্থানান্তরের মাধ্যমে প্রাথমিক পর্যায়ে তার যাত্রা শুরু করে।তবে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের নুতন রেগুলেশনের নির্দেশনায় একটি ভাল মানের লাইব্রেরি প্রতিষ্ঠার কথা বলা ফলশ্রুতিতে ১৯১০ সালে কলেজে তত্কালীন ‘কমনরুম’ ভবরে ছোট তিনটি কক্ষ নিয়ে লাইব্রেরির কার্যক্রম নিয়মিত ভাবে শুরু হয়৷ পর্যvয়ক্রমে ১৯১৭-১৯১৮ সালে লাব্রেরির সংগ্রহে ১০,০১২ খানা পুস্তক এবং পরবর্তীতে ১০,২৭৫ খানা পুস্তক যা সে সময়ের প্রেক্ষাপটে একটি গ্রহণযোগ্য সংখ্যা বলে ধরে নেয়া।রাজশাহী কলেজ গ্রন্থাগারে বহু মূল্যবান ও প্রাচীন গ্রন্থসহ সংস্কৃত, বাংলা পুঁথি ও সাময়িকী সংরক্ষিত আছে৷ বর্তমানে এই লাইব্রেরীতে নতুন ও শতাব্দী প্রাচীন প্রায় ৭০০০০ পুস্তক, জার্নাল ও রিযোর্ট রয়েছে

সংগ্রহ

রাজশাহী কলেজ গ্রন্থাগারে সংস্কৃত ভাষায় লেখা পাঁচ শতাধিক প্রাচীন পুঁথি রয়েছে৷ সংস্কৃত সাহিত্যের বেদ, পুরাণ, মহাকাব্য, কাব্য, তন্ত্র ইত্যাদি বিষয় নিয়ে এই পুঁথিগুলো লেখা৷ এই পুঁথিগুলোর অধিকাংশই দেশীয় উপকরণের সাহায্যে প্রস্তুত, হাতে তৈরি তুলোট কাগজে লেখা৷ এর কাগজ হরিতাল, অভ্র ইত্যাদির প্রলেপ দিয়ে জীবাণুমুক্ত করা হয়েছে৷ পুঁথিগুলো হরিতকি, হিঙ্গুল, অঙ্গার, ছাগদুগ্ধ, জবার কুড়ির সাহায্যে প্রস্তুত দেশীয় কালিতে লেখা৷ কালির রং ঘন কালো এবং দীর্ঘস্থায়ী| কঞ্চি শর, ময়ূর বা শকুনের পালক দিয়ে তৈরি কলমে পুথিগুলো লেখা। পুথিগুলোর লিপিকার যথাক্রমে শকাব্দ, সম্বত্ ও সনে লেখা৷ পুঁথিগুলো সেলাইবিহীন, কাঠের পাটাতনে বাঁধা রয়েছে৷ কোনটিতে পৃষ্ঠাঙ্ক দেয়া আছে৷ কোনটি আবার পৃষ্ঠাঙ্কবিহীন৷ ছাত্র-ছাত্রীদের পূর্ণvঙ্গ সহযোগিতা প্রদানে রাজশাহী কলেজ লাইব্রেরি তার অনন্য ভূমিকা ঐতিহাসিকভাবে পালন করে আসছে৷ যা অতীত এবং বর্তমানের মাঝে সাঁকো হিসাবে মানব সমাজের ভবিষৎ আলোর পথ রচনা করে চলেছে৷